প্রসব পরবর্তী বিপদ চিহ্ন বা প্রসব পরবর্তী জটিলতা ? নবজাতকের বিপদ চিহ্ন কয়টি ও কি কি?

প্রসব পরবর্তী চিকিৎসা কাকে বলে ?

প্রসবের পর পরই মায়ের এবং নবজাত শিশুর যত্ন নেয়া এবং প্রসবের পর ৬ সপ্তাহ (৪২ দিন) পর্যন্ত মা ও শিশুর অবস্থা পরিবীক্ষণ করাকে প্রসব পরবর্তী সেবা বলা হয় ।

infertility আপডেট তথ্য পেতে google news” অনুসরণ করুন।

প্রসব পরবর্তী মায়ের যত্ন বা প্রসব পরবর্তী চেকআপ ?

প্রসবের পর পরই মায়ের এবং নবজাত শিশুর যত্ন নেয়া এবং প্রসবের পর ৬ সপ্তাহ (৪২ দিন) পর্যন্ত মা ও শিশুর অবস্থা ফলোআপ করাকে প্রসব পরবর্তী সেবা বলা হয়।

আরও জানুনঃ গর্ভবতী মায়ের খাবার তালিকা এবং গর্ভবতী মায়ের খাবার ?

প্রসব পরবর্তী মায়ের যত্ন বা প্রসব পরবর্তী চেকআপ :

  • গর্ভধারণে শরীরের যে ক্ষয় হয় তা পূরণের জন্য প্রসবের পর মাকে বেশি করে খাবার খেতে হবে ।
  • শিশুর প্রয়োজনে বুকের দুধ তৈরীর জন্য এ সময় মায়ের সুষম খাবার খাওয়া প্রয়োজন ।
  • মাকে পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে হবে । * মাকে নিয়মিত গোসল ও পরিষ্কার কাপড় পরাতে হবে ।
  • প্রসূতি মাকে Vitamin A ক্যাপসূল ও Iron tablet খেতে হবে ।
  • প্রসবের পর দম্পত্তিকে পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি গ্রহণ করতে হবে ।
  • পরিবারের সকল সদস্যকে প্রসব পরবর্তী মায়ের সেবা সম্পর্কে অবহিত করতে হবে ।

আরও জানুনঃ গর্ভবতী মায়ের যত্ন কি কি এবং গর্ভবতী মায়ের প্রথম তিন মাসের সতর্কতা ? গর্ভবতী মায়ের কি কি চেকআপ করা দরকার ?

নবজাতকের বিপদ চিহ্ন কয়টি ও কি কি? নবজাতকের বিপদ চিহ্ন ?

  • শিশুর মুখের ভিতর, মুখমন্ডল ও সমুদয় দেহ পরিস্কার পোশাক দিয়ে জড়িয়ে নিতে হবে ।
  • ভুমিষ্টের পরপরই গর্ভফুল পড়ার অপেক্ষা না করে শিশুকে শালদুধ সহ মায়ের দুধ খাওয়ানো শুরু করার জন্য হবে।
  • সৃষ্টির সঙ্গে সাথে বাচ্চা স্তন। চোষা শুরু করলে মায়ের দুধ ঠিকমত আসবে।
  • এছাড়া প্রসবের সাথে সাথে শিশুকে মায়ের দুধ খাওয়ালে মায়ের ফুল পড়তে এবং রক্তস্রাব দ্রুত বন্ধ হতে সাহায্য করবে ।
  • * নাড়ী কাটার জন্য প্রথমে নবজাতকের পেট হতে যথাক্রমে দুই আঙ্গুল, আধ আঙ্গুল ও এক আঙ্গুল ব্যবধানে জীবাণুমুক্ত সূতা দিয়ে পরপর তিনটি বাঁধন দিতে হবে। তারপর পরিস্কার জীবাণুমুক্ত ব্লেড দিয়ে দ্বিতীয় ও তৃতীয় বাঁধনের মাঝ বরাবর কেটে দিতে হবে।
  • শিশুর জন্মের ৪৮ ঘন্টার মধ্যে তার ওজন নিতে হবে ।
  • বাচ্চ জম্মের পর BCGএবং এবং EPI এর ৮টি রোগের টিকা দিতে হবে ।

আরও জানুনঃ অ্যামনিওটিক ফ্লুইড কি ? অ্যামনিওটিক ফ্লুইড এর কাজ কি ? গর্ভফুল কি ? গর্ভবতী কত দিন পর সন্তান ভূমিষ্ঠ হয় ?

প্রসব পরবর্তী জটিলতা এবং প্রসব পরবর্তী বিপদ বা খারাপ লক্ষণ ?

  • খিঁচুনী বা অজ্ঞান হওয়া
  • তলপেটে প্রচণ্ড ব্যথা হওয়া
  • ব্রেস্ট এ ব্যথা, ফুলে উঠা অথবা লাল হওয়া।

প্রসব পরবর্তী জটিলতা দেখা দিলে চিকিৎসা বা সহায়তা প্রাপ্তির জন্য কোথায় যোগাযোগ করতে হবে ?

আরও জানুনঃ গর্ভাবস্থায় বা প্রেগনেন্ট হলে নারীর শরীরের পরিবর্তন বা লক্ষণ দেখা যায় ?

প্রসব পরবর্তী চিকিৎসা বা সহায়তা প্রাপ্তির স্থানসমূহ :

  • ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র
  • উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্স
  • মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্ৰ
  • জেলা হাসপাতাল
  • সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়

আরও জানুনঃ পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম কি ? পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম লক্ষণ ?

রিলেটেড ট্যাগঃ প্রসব পরবর্তী জটিলতা ?,নবজাতকের বিপদ চিহ্ন, প্রসব পরবর্তী মায়ের যত্ন, নবজাতকের বিপদ চিহ্ন কয়টি ও কি কি?,প্রসব পরবর্তী চেকআপ,

Leave a Reply