গর্ভাবস্থায় রক্তক্ষরণ হলে কি বাচ্চা নষ্ট হয় ? গর্ভাবস্থায় বাচ্চা নষ্ট হওয়ার কারণ ?

পোস্ট সামারীঃ

  • গর্ভাবস্থায় রক্তক্ষরণ হলে কি বাচ্চা নষ্ট হয় ?
  • ৪ সপ্তাহের গর্ভাবস্থায় কি রক্তক্ষরণ হয় ?
  • গর্ভাবস্থায় বাচ্চা নষ্ট হওয়ার কারণ ?
  • গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে কতটুকু রক্তপাত স্বাভাবিক ?
  • গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে স্বাভাবিক রক্তের পরিমাণ কত ?

infertilityorg

infertility & Health tips এর আপডেট তথ্য পেতে google news” অনুসরণ করুন

গর্ভাবস্থায় রক্তক্ষরণ
গর্ভাবস্থায় রক্তক্ষরণ

গর্ভাবস্থায় রক্তক্ষরণ হলে কি বাচ্চা নষ্ট হয় ?

গর্ভাবস্থায় রক্তক্ষরণঃ গর্ভের প্রথমদিকে রক্তক্ষরণ হলে সন্তান নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে । তবে রক্তক্ষরণ হলেই সব বাচ্চা নষ্ট হয়ে যায় না। এই অবস্থা দেখা দিলে আপনাকে অবশ্যই আপনার ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে । গর্ভের বাচ্চার বয়স ২৫ সপ্তাহ বা তার বেশি হওয়ার পর রক্তক্ষরণ হলে জটিল কোন অবস্থা হতে পারে । এদের একটি হলো গর্ভফুল জরায়ুর নিচের দিকে অবস্থান করা । এই অবস্থাকে প্লাসেন্টা প্রিভিয়া (Placenta previa) বলা হয় । এই অবস্থাটির প্রধান লক্ষণ হলো কোনো কারণ ছাড়াই ব্যথাহীন ভাবে বারবার রক্তক্ষরণ হওয়া। এই অবস্থা দেখা দিলে অবশ্যই দ্রুত আপনার ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। গভীবস্থার শেষের দিকে আর একটি কারণেও রক্তক্ষরণ হয়। এই অবস্থাকে এবরাপসিও প্লেসেন্টা (Abraptio placenta) বলা হয় । এই অবস্থায় গর্ভফুলটি তার নিজের জায়গায়, অর্থাৎ জরায়ুর উপরের দিকেই অবস্থান করে। তবে এই ফুলটি আংশিক বা সম্পূর্ণভাবে জরায়ু হতে পৃথক হয়ে যায় । এর প্রধান লক্ষণগুলো হলো ব্যথা সহকারে রক্তক্ষরণ হওয়া ।

আরও জানুনঃ পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম কি ? পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম লক্ষণ ?

মনে রাখতে হবে, গর্ভাবস্থার শেষের দিকে যদি রক্তক্ষরণ হয়, তবে তা মায়ের জীবনের ঝুঁকি বৃদ্ধি করে থাকে। আর এ সব পরিস্থিতির সম্মুক্ষীণ হলে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শের জন্য হাসপাতালে যেতে হবে ।

গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে যাওয়া ?

মায়ের গর্ভে নির্দিষ্ট বয়স অর্জনের পূর্বে সন্তান জরায়ু হতে বের হয়ে আসলে, এই অবস্থাকে সন্তান নষ্ট হওয়া বা এবরসন (Abortion) বলা হয়। জন্মের পর বেঁচে থাকার জন্য আমাদের দেশে ২৮ সপ্তাহের জন্য মাতৃগর্ভে অবস্থানের প্রয়োজন হয় । কিন্তু উন্নত বিশ্বে এই গর্ভকাল সময়কে ২০ সপ্তাহ ধরা হয়ে থাকে । সবচেয়ে বেশি বাচ্চা নষ্ট হয় শেষ মাসিকের প্রথম দিন হতে ১২ সপ্তাহের মধ্যে ।

আরও জানুনঃ টেস্ট টিউব বেবি কি ? টেস্ট টিউব বেবি কিভাবে হয় ? এক্টোপিক প্রেগন্যান্সি কাকে বলে এবং এক্টোপিক প্রেগন্যান্সি কেন হয় ?

৪ সপ্তাহের গর্ভাবস্থায় কি রক্তক্ষরণ হয় ?

গর্ভাবস্থায় প্রথম দিক অল্প পরিমাণ রক্তক্ষরণ হত পারে। অনেক ক্ষেত্রে এটি গুরুতর নয়। গর্ভাবস্থায় রক্তক্ষরণ হলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

গর্ভাবস্থায় বাচ্চা নষ্ট হওয়ার কারণ ?

গর্ভের সন্তান নষ্ট হওয়া মায়ের মধ্যে দারুণ হতাশার সৃষ্টি হয় । মা জানতে চান কি কারণে তার পেটের সন্তান নষ্ট হলো । দেখা যায় যে, প্রথম তিন মাসে যে সকল সন্তান নষ্ট হয়, তাদের ৭০% ক্ষেত্রেই ক্লোমোজমের ত্রুটি (Chromosomal Defect) থাকে । এদের বেশির ভাগই বেঁচে থাকতে পারে না । বাকি শতকরা ৩০% ভাগ ক্ষেত্রে একটি বড় অংশের কারণ আমাদের জানা নেই । এই ত্রিশ ভাগ এবরশানের ক্ষেত্রে যে সব কারণ চিহ্নিত করা গেছে, তা হলো ইনফেকশন, জন্মগত ত্রুটি, মায়ের দৈহিক এবং মানসিক রোগ । যেহেতু প্রথম তিন মাসে সন্তান নষ্ট হওয়ার কারণগুলোর মধ্যে ক্লোমোজমের ত্রুটি (Chromosomal Defect) বেশি এবং বেশির ভাগই বেঁচে থাকতে পারে না তাই এইসব বাচ্চা নষ্ট হওয়াটা স্রষ্টার আশীর্বাদ ছাড়া অভিশাপ নয় । বাকি শতকরা ৩০ ভাগ ক্ষেত্রে যদি কোন কারণ পাওয়া যায় এবং তার সঠিক চিকিৎসা দেওয়া যায়, তবে

আরও জানুনঃ গর্ভবতী মায়ের খাবার তালিকা এবং গর্ভবতী মায়ের খাবার ?

গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে কতটুকু রক্তপাত স্বাভাবিক ?


গর্ভাবস্থার ১ম দিকে কতটুকু রক্তপাত স্বাভাবিক যাইহোক, গর্ভাবস্থার ১ম তিন মাস (12 সপ্তাহ) সময় রক্তপাত সাধারণ তার সাথে এটা একটি ঝামেলার হাবভাব থেকে পারে বা নাও থেকে পারে। এটা হালকা বাদামী আঁচড় হতে শুরু করে দীপ্ত লাল রক্তপাত পর্যন্ত হতে পারে, এক দিন হতে সপ্তাহ পর্যন্ত স্থায়ী থেকে পারে তার সাথে এর সাথে হালকা ক্র্যাম্পিং বা নিম্ন পিঠে বেদনা হতে পারে।

গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে স্বাভাবিক রক্তের পরিমাণ কত ?

আরও জানুনঃ গর্ভবতী মায়ের যত্ন কি কি এবং গর্ভবতী মায়ের প্রথম তিন মাসের সতর্কতা ? গর্ভবতী মায়ের কি কি চেকআপ করা দরকার ?


গর্ভাবস্থার ১ম দিকে স্বাভাবিক রক্তের সংখ্যা কত গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে আঁচড় পড়া সাধারণত উদ্বেগের বিষয় নয় । তবে, যদি প্যান্টি লাইনার ঢেকে রাখার মতো রক্ত অনেক ভারী হয়, তাহলে সেটাকে ‘ব্লিডিং’ বলে মনে করা হয়। এই ধরনের নির্ঝর সাধারণত আপনার কাপড় ভিজানোর জন্য প্রচুর ভারী হয়। ভারী রক্তপাত সম্মন্ধে আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর সাথে কথা বলুন

ডিসক্লেইমার: এখানে উপরোক্ত হেলথটিপস এবং পরামর্শগুলি অনুসরণ করার পূর্বে , ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে নিন।

রিলেটেড ট্যাগঃ গর্ভাবস্থায় রক্তক্ষরণ হলে কি বাচ্চা নষ্ট হয়, গর্ভাবস্থায় রক্তপাত কতদিন থাকে, গর্ভাবস্থায় রক্তপাত বন্ধের উপায়, ৪ সপ্তাহের গর্ভাবস্থায় রক্তপাত, হালকা রক্তপাত কিসের লক্ষণ, গর্ভাবস্থায় কালো রক্তপাত, গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে কতটুকু রক্তপাত স্বাভাবিক, গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে স্বাভাবিক রক্তের পরিমাণ কত

Leave a Reply